৩০ বছর বয়সের পরেও চেহারায় তারূণ্য ধরে রাখতে ছেলেদের জন্য রইল কিছু টিপস্

0
109

মেয়েরা যতটা ত্বকের যত্ন নেয়, পুরুষরা কিন্তু সেভাবে তাদের ত্বকের যত্ন নেয় না। যে কারণে তাদের ত্বকের অনেক ক্ষতি হয়। কিন্তু, ছেলেদেরও উচিত মেয়েদের মতো ত্বকের যত্ন নেওয়া।

বিশেষত, ৩০ বছর বয়সের পরে ছেলেদের ত্বকের যত্ন নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এই বয়সে ত্বকে রিঙ্কেল দেখা দেয় এবং ত্বক ম্লান হতে শুরু করে। তাই এই সময় নিজেকে তরুণ দেখাতে ছেলেদের উচিত ত্বকের বিশেষ যত্ন নেওয়া। আসুন জেনে নেওয়া যাক ৩০ বছর বয়সে কীভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়া যায়।

স্ক্রাব:

ছেলেদের ত্বক মেয়েদের চেয়ে বেশি তৈলাক্ত এবং রুক্ষ হয়। এক্ষেত্রে ত্বক নরম করতে স্ক্রাব করা খুবই জরুরি। স্ক্রাব করলে ত্বকের ডেড স্কিন অপসারণ হয়। সপ্তাহে দু’বার স্ক্রাব করা উচিত। স্ক্রাবিং ত্বককে উজ্জ্বল রাখে। আপনার ত্বক যদি তৈলাক্ত হয় তবে আপনি সপ্তাহে তিন বার স্ক্রাব করতে পারেন।

টোনার ব্যবহার করুন:

টোনার বেশিরভাগই মেয়েরা ব্যবহার করে মুখের সমস্ত দাগ কমাতে। সেরকমই অনেক ছেলেদের মুখেও র‌্যাশ বেরোয়, অনেক দাগ দেখা যায়। এক্ষেত্রে টোনার সবথেকে সেরা মেকআপ পণ্য। রাতে ঘুমানোর আগে টোনারটি ত্বকে ব্যবহার করা হয়, সকালেও একবার এটি মুখের উপর প্রয়োগ করা যেতে পারে। এটি করার ফলে, ১৫ দিনের মধ্যে দাগ হ্রাস হতে পারে। টোনারের ব্যবহার মুখের ময়লা দূর করে।

স্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রা:

আমাদের অগোছালো জীবনযাত্রা আমাদের ত্বকে অনেক বেশি প্রভাব ফেলে। ব্যস্ত জীবনযাত্রার কারণে সঠিক খাদ্যগ্রহণ এবং পানীয়-এর ক্ষেত্রেও সমস্যা দেখা দেয়। বাইরের খাবার অতিরিক্ত খাওয়ার কারণে আমাদের ত্বক নিস্তেজ হয়ে যায়। মুখ তার উজ্জ্বলতা হারায়। একই সাথে, ব্যস্ত জীবনযাত্রার কারণে সময়মতো ঘুম না হওয়ায় মুখে ক্লান্তির ছাপ স্পষ্ট ফুটে ওঠে। এই পরিস্থিতিতে জীবনযাত্রায় কিছু পরিবর্তন প্রয়োজন, যেমন – সময়মতো ঘুমানো এবং স্বাস্থ্যকর ডায়েট অনুসরণ করলে ত্বক তার সৌন্দর্যকে ফিরে পায়।

জল:

মেয়েদের মতো ছেলেদেরও ত্বকের যত্ন নিতে হলে প্রচুর পরিমাণে জল পান করা উচিত। বেশি পরিমাণে জল পান করলে ত্বক উজ্জ্বল থাকে। জল পান করলে ত্বক হাইড্রেটও থাকে। এছাড়াও, মুখের দাগও কমে যায়।

বোন বা স্ত্রীর মেক-আপ পণ্য ব্যবহার করবেন না:

কিছু ছেলে তাদের বোন এবং স্ত্রীর মেকআপ পণ্য ব্যবহার করে। মেয়েদের ত্বক খুব নরম হয়, মেয়েদের মেকআপ প্রোডাক্ট ব্যবহার করলে আপনার ত্বকের তেমন কোনও উন্নতি হবে না। তাই, ছেলেদের তাদের ত্বক অনুযায়ী পণ্য ব্যবহার করা উচিত। কিছু ছেলের ত্বক তৈলাক্ত হয় এবং কিছু ছেলেদের ত্বক শুষ্ক হয়, এক্ষেত্রে তাদের ত্বক অনুযায়ী পণ্য বা ক্রিম ব্যবহার করা উচিত।