২৮৮ বস্তা চাল লোপাটের দায়ে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে কারাদণ্ড

0
133

বগুড়া ব্যুরো:
বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলায় খোলা বাজারে বিক্রির জন্য উত্তোলন করা ২৮৮ বস্তা চাল লোপাটের দায়ে এক ডিলারকে এক মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। একই সঙ্গে বাতিল করা হয়েছে তার ওএমএস ডিলারশিপও। গাজীউল হক নামের ওই ওএমএস ডিলার উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং ওই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাসেল মিয়া যমুনা নিউজকে জানান, ওএমএস ডিলার গাজীউল হক ১০টাকা কেজি দরে বিক্রির জন্য রোববার প্রতি বস্তা ৩০ কেজি হিসেবে ৫০০ বস্তা চাল উত্তোলন করেন খাদ্য অধিদফতর থেকে। প্রকৃত সুবিধাভোগীদের বাদ দিয়ে তিনি এই চালের বেশিরভাগ-ই কালোবাজারে বিক্রি করেছেন-এমন তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার বিকেলে গাজীউল হকের গুদামঘরে অভিযান চালানো হয়।

এসময় সেখানে ২১২ বস্তা চাল পাওয়া যায়। বাকি ২৮৮ বস্তা কার্ডধারীদের ১০টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছেন বলে গাজীউল দাবি করলেও অনুসন্ধানে দেখা যায় বিক্রির তালিকাটি ভূয়া। এই চাল তিনি সুবিধাভোগীদের বাইরে অন্যত্র বিক্রি করেছেন-এমনটি প্রমাণিত হওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালত তার ডিলারশিপ বাতিলসহ তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে তার গুদামঘরে পাওয়া ২১২ বস্তা চাল সিলগালা করে দেয়া হয় বলেও জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

সন্ধ্যায় গাজীউল হককে বগুড়া কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে সারিয়াকান্দি থানা পুলিশ।