হার না মানা গল্প: করোনাকে হারিয়ে দিলেন ১০৭ বছরের বৃদ্ধা

0
100

বিশ্বজুড়ে লক্ষাধিক মানুষের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাস। প্রবীণদের বেলায় এর ভয়াবহতা যেন আরও বেশি। প্রবীণদের মৃত্যুর সংখ্যাও অন্যদের তুলনায় বেশি বলে জানাচ্ছেন চিকিৎসকেরা। কিন্তু এর মাঝেও কিছু হার না মানা গল্প মানুষকে আশার আলো দেখাচ্ছে। সম্প্রতি ১০৩ বছরের এক বৃদ্ধার করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার খবর পাওয়া গিয়েছিল। এবার তার থেকে ৪ বছরের বড় আরেক ডাচ বৃদ্ধা করোনাকে হারিয়ে দিলেন।

কয়েক সপ্তাহ আগে ইরানে ১০৩ বছরের ওই মহিলা করোনা থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন। তারপর ৯৯ বছরের রিটা রেনল্ডস ইংল্যান্ডের সব থেকে প্রবীণ হিসেবে করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন। এ ছাড়াও ইতালির আমলা ক্লারা কোরসিনি নামে ৯৫ বছরের এক মহিলা ৫ মার্চ করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসাপাতলে ভর্তি হন। তিন সপ্তাহেরও কম সময়ে তিনি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন। সূত্র: আনন্দবাজার।

তাদের সবার রেকর্ড ভেঙে দিলেন কর্নেলিয়া রাস নামের ১০৭ বছরের ডাচ বৃদ্ধা। সম্প্রতি ১০৭-তম জন্মদিন পার করেছেন তিনি। পরের দিনই তিনি অসুস্থ হয়ে নেদারল্যান্ডসের এক নার্সিংহোমে ভর্তি হন। পরীক্ষায় তার করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ে। নার্সিংহোমে চিকিৎসা চলতে থাকে রাসের।

বয়স বিবেচনায় সবাই যখন আশা ছেড়ে দিতে থাকলেন তখন রাসের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে শুরু করে। আড়াই সপ্তাহের ব্যবধানে তিনি এখন করোনা মুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। এখন পর্যন্ত করোনাকে জয় করা সবচেয়ে প্রবীণ ব্যক্তি তিনি। রেকর্ড গড়ার পাশাপাশি এই বার্তাই দিলেন, করোনাকে জয় করা যায়।