সংক্রমণ ঠেকাতে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধের চিন্তা করছে বাংলাদেশ

0
64
File Photo

নতুন ধরনের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাময়িকভাবে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে আকাশপথের যোগাযোগ বন্ধ রাখার চিন্তা করছে বাংলাদেশ। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ শেষে যেকোন মুহূর্তে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

মঙ্গলবার দুপুরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো জানান, বিষয়টি নিয়ে এরই মধ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা শুরু হয়েছে।

নতুন ধরনের করোনাভাইরাস পাওয়ার বিষয়ে যুক্তরাজ্য সরকার তাদের গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশের পর পরই ইউরোপ, কানাডা, সৌদি আরব ও ভারতসহ ৪০টি দেশ যুক্তরাজ্যের সঙ্গে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল সাময়িকভাবে বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়। বাংলাদেশও একই ধরনের সিদ্ধান্ত নেয়ার পরিকল্পনা করছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এদিকে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. মহিবুল হক জানান, আমরা বিষয়টির উপর তীক্ষ্ণ নজর রাখছি, সময় মত সিদ্ধান্তটা সবাইকে জানিয়ে দেব।

বাংলাদেশ এখনো কোনো দেশের সঙ্গে ফ্লাইট পরিচালনা বন্ধ করেনি জানিয়ে তিনি বলেন, কিছু দেশ যেহেতু আমাদের এক্সেস দিচ্ছে না, সে কারণে আমাদের বিমান যেতে পারছে না। আমরা মধ্যপ্রাচ্যে ফ্লাইট বন্ধ করিনি, তারা তাদেরটা বন্ধ করেছে বলে আমাদের বিমান যেতে পারছে না।

সৌদি আরব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ করে দেয়ায় বাংলাদেশি যাত্রীদের ভোগান্তি নিয়ে এক প্রশ্নে মহিবুল বলেন, বিভিন্ন দেশে যে সমস্ত ফ্লাইটগুলো বন্ধ হয়েছে, যাত্রীদের ভোগান্তি হয়েছে, আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত। কারণ এটা তো আমাদের এখতিয়ার বহির্ভূত। আমরা যেটা করতে পারি, তাদের কোনো রকম ফি ছাড়াই, যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে, আমরা এই টিকিটটা রি-ইস্যু করে দেব তাদের। তখন তারা কোনো রকম বাড়তি পয়সা ছাড়াই আবার যেতে পারবে।

সোমবার পর্যন্ত বাংলাদেশে ২৯টি এয়ারলাইন্স ফ্লাইট পরিচালনা করছিল জানিয়ে তিনি বলেন, এর মধ্যে যাত্রীবাহী ফ্লাইটের সংখ্যা ছিলো ১৯৮টি, আর কার্গোবাহী ফ্লাইট ছিল ৭৪টি।