Bangladesh News Network

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে আটক ৩ শতাধিক

0 4,339

কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে প্রায় ফাঁকা রাজধানী। এর মধ্যেই অপ্রয়োজনে বের হওয়ার অভিযোগে এখন পর্যন্ত ৩০৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

একে শুক্রবার, তার উপর বৃষ্টি। ভোর থেকেই রাজধানীর বিভিন্ন সড়ক ছিল বেশ ফাঁকা। রিকশা ও ব্যক্তিগত গাড়ি চলাচলও ছিল কম। রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে পুলিশের পাশাপাশি তৎপর দেখা গেছে সেনা ও বিজিবি সদস্যদের। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি এড়িয়ে আজও অনেকে ঢাকা ছাড়ছেন। অফিস ছুটি ও কাজ না থাকার অজুহাতে বাড়ি ফিরছেন তারা।গণপরিবহন না থাকলেও অটোরিকশা, পিকআপে ভেঙে ভেঙে ঢাকা ছাড়েন অনেকে।


লোকজন ও গাড়ি কম থাকলেও তৎপর ছিল আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। নানা প্রয়োজনে বের হলেও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর কাছে করতে হয় জবাবদিহি। ব্যক্তিগত গাড়ি ও মোটরসাইকেল থামিয়ে তারা জানতে চান বের হওয়ার কারণ। রাজধানীর চব্বিশটি পয়েন্টে তল্লাশি করে সেনাবাহিনী। গাবতলী, সায়েদাবাদ, আব্দুল্লাপুরসহ রাজধানী ছেড়ে যাওয়ার অন্য পয়েন্টগুলোতে পুলিশের পাশাপাশি সেনাসদস্যদেরও চলাচল নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে দেখা গেছে।

পুলিশ বলছে, সরকারের নিষেধাজ্ঞার পরও যারা যৌক্তিক কারণ ছাড়া রাস্তায় বের হয়েছে কিংবা স্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘন করবে, তাদেরই আইনের আওতায় আনা হচ্ছে।শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত কলাবাগান, পান্থপথ থেকে চারজনকে থানায় নেয়া হয়। রমনা থানার ডিউটি অফিসার বলেন, আমাদের মাঠের সদস্যরা ৫ জনকে থানায় নিয়ে এসেছে। দুপুর পর্যন্ত ১২ জনকে মিরপুর থানায় নেয়া হয়েছে জানান ডিউটি অফিসার।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবার থেকে এক সপ্তাহের জন্য এই কঠোর লকডাউন শুরু হয়। সরকারি বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা করতে সারাদেশেই সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় মাঠে রাখা হয়েছে ১০৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে। অফিস-আদালত, গণপরিবহন, শপিংমল বন্ধ; জরুরি সেবার গাড়ি ছাড়া সব যান্ত্রিক বাহন চলাচেলেও রয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

জনসাধারণকে অনুরোধ জানানো হয়েছে ঘরে থাকার। এই বিধিনিষেধের মধ্যে জরুরি কারণ ছাড়া ঘরের বাইরে বের হলে কঠোর শাস্তির মুখে পড়তে হবে বলে হুঁশিয়ার করা হয়েছে।লকডাউনের প্রথম দিন বৃহস্পতিবার ঢাকার রাস্তায় গ্রেপ্তার হয়েছেন ৫৫০ জন।

কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিন মহাখালী, তেজগাঁও, ফার্মগেট, বিজয় সরণিসহ ঢাকার রাস্তা অনেকটাই ফাঁকা দেখা গেছে। শুক্রবার ছুটির দিন এবং টানা বৃষ্টির কারণে রাস্তায় যানবাহনের চাপ যেমন কম ছিল, তেমনি লোকজনের আনাগোনাও তেমন ছিল না।

ফলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের বিভিন্ন চেকপোস্টে অলস সময় কাটাতে দেখা গেছে। রাজধানীর জাহাঙ্গীর গেট চেকপোস্টে দুপুর ২টা পর্যন্ত মামলা দেয়া হয়েছে একজনকে। সরকারি আদেশ অমান্য করায় মোটরসাইকেলের এক আরোহীকে এই মামলা দেয়া হয়।

Comments
Loading...
%d bloggers like this: