মাত্র ১ ডলার করোনা শনাক্তের কিট উৎপাদন

0
134

করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ মহামারি থেকে বাঁচতে বিশ্বের সব দেশই উপায় খুঁজছে। কিন্তু এ ভাইরাসের এখনো নির্দিষ্ট কোনো ওষুধ তৈরি হয়নি। সাধারণত এমন একটি ওষুধ বাজারে আসতে ১০ থেকে ১৫ বছর সময় লাগে। ফলে করোনার ওষুধ নিয়ে যেসব পদক্ষেপ চলছে তার ফলাফল কী দাঁড়াবে তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, করোনা মোকাবিলায় বর্তমানে বিশ্বের প্রায় ৭০টি ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ হচ্ছে। এ ৭০টি ভ্যাকসিনের মধ্যে কয়েকটিকে বেশি প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। সেগুলো থেকে হয়তো একটি বা দুটি সফল হতে পারে। আবার নাও হতে পারে।

কিন্তু সম্ভাবনাকে ধরে নিয়ে এ খাতে বিপুল অর্থ দিচ্ছে বিল গেটসের দাতব্য প্রতিষ্ঠান বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। প্রতিষ্ঠানটি মোট সাতটি ভ্যাকসিনকে সম্ভাব্য ফলাফলের জন্য ইতিবাচক ধরে অর্থ দিচ্ছে।

বিল গেটস বলেছেন, ভ্যাকসিন আবিষ্কারের বিষয়টি একটি যুদ্ধ। এখানে বিলিয়ন ডলার খরচ করা অনেক ভালো। কারণ এটি করা না হলে বিশ্বের ট্রিলিয়ন ডলার লোকসান হবে। তাই ট্রিলিয়ন ডলার লোকসানের চেয়ে বিলিয়ন ডলার অনুদান ভালো।

করোনা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রে সব মিলিয়ে প্রায় ৫০০ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ ও অনুদান দেয়া হচ্ছে।

তবে পশ্চিমা বিশ্বে এমন বিলিয়ন ডলারের খেলা চললেও সেনেগালের মতো দেশে মাত্র ১ ডলার করোনা শনাক্তের কিট উৎপাদন করা হয়েছে। তাই করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কারের মাধ্যমে এ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগকারীরাই বাজার দখল করবে নাকি ১ ডলারেই তৈরি হবে এই ওষুধ সেটি সময়ই বলে দেবে।

সূত্র: আল-জাজিরা।