ভাইরাল করা ভিডিওটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন

0
40

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে এক প্রবাসীর বাড়ির চৌচালা টিনের ঘরে চারদিক থেকে লাঠিসোটা দিয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছেন অর্ধশতাধিক মানুষ। প্রায় ৫০ মিনিটের এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

এতে উল্লেখ করা হয়েছে, ঘটনাটি নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার মরজাল গ্রামের। গত সোমবার ও মঙ্গলবার এই দু’দিন ধরে ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ ও ‘নবাবজাদা’ নামের দু’টি ফেসবুক পেইজসহ একাধিক একাউন্ট থেকে ভিডিওটি ভাইরাল করা হয়। এ নিয়ে জেলা ও জেলার বাইরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্রিয়া প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হয় স্থানীয় প্রশাসনেরও। এ অবস্থায় স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন খোঁজ করে রায়পুরার মরজালে এমন কোনো বাড়িঘরের অস্তিত্ব ও হামলার ঘটনার সত্যতা পায়নি।

এ গুজব ছড়ানোর ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জাকির হাসান।

সত্যতা জানতে যোগাযোগ করা হলে জেলা পুলিশ জানায়, কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার হাপানিয়া এলাকার মাজার কেন্দ্রিক একটি হামলার ঘটনার ভিডিও এটি। বেশ আগের এই ভিডিওটি নরসিংদীর রায়পুরার মরজালের ঘটনা বলে গত দু’দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল করা হচ্ছে। সেখানে উল্লেখ করা হচ্ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক প্রবাসীর বাড়িতে এই হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটানো হয়েছে। অথচ একই ভিডিও অন্য আইডি থেকে কয়েকদিন আগে রায়পুরার চরাঞ্চলের চাঁনপুরের সংঘর্ষের ঘটনা হিসেবেও ভাইরাল করা হয়েছিল। সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এই ভিডিওটির মিথ্যা অপপ্রচার করে স্থানীয়ভাবে উত্তেজনা সৃষ্টির চেষ্টা করা হচ্ছে। এই ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে মাঠে নেমেছে পুলিশ।

স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, মরজাল এলাকার সাদেক মিয়া ও সজিব মিয়া নামের দুইভাই তিন-চারমাস আগে দেশে ফিরেছেন। একজন সৌদি আরব থেকে অন্যজন সিঙ্গাপুর থেকে। দেশে ফেরার পর তাদের সঙ্গে চাচাত ভাইদের জমিজমা নিয়ে বিরোধে ঝগড়া হলেও পরবর্তীতে তা মীমাংসা হয়ে যায়। এছাড়া অন্য কোন প্রবাসীর বাড়িঘরে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনা মরজাল বা রায়পুরায় ঘটেনি। করোনাভাইরাস নিয়ে চলমান আতঙ্কের এই সময়ে এমন স্পর্শকাতর একটি ভিডিও ছড়িয়ে দিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) জাকির হাসান বলেন, একই ভিডিও কয়েকটি ঘটনায় ভাইরাল হওয়ার বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখছি। পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট আমাদের জানিয়েছে, ভিডিওটি মূলত কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরের। এই ঘটনায় সাইবার অপরাধ আইনে মামলা করা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here