Bangladesh News Network

বিধিনিষেধ আরোপ করে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের নির্দেশনা পরিবর্তন

0 3,810

চলমান মহামারি কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে ২০ দেশের ওপর বিধিনিষেধ আরোপ করে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের নির্দেশনা পরিবর্তন করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। সোমবার (৫ জুলাই) বেবিচকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে ২০টি দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলেও এর মধ্যে কিছু দেশের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। এছাড়া কয়েকটি দেশের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে।

এর আগেও ১৯ দেশের ওপর বিধিনিষেধ জারি করে গত ৪ জুন নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। তবে এবার কয়েকটি দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে। কয়েকটি দেশের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। আর কয়েকটি দেশ থেকে শর্তসাপেক্ষে চলাচলের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

এর মধ্যে গ্রুপ ‘এ‘ বা ঝুঁকিপূর্ণ ৮টি দেশ থেকে বাংলাদেশর প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। দেশগুলো হলো- বতসোয়ানা, ভারত, মঙ্গোলিয়া, নেপাল, পানামা, নামিবিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও তিউনিসিয়া। ১৫ দিন আগে এসব দেশ ভ্রমণকারী কোন বাংলাদেশি দেশে আসতে চাইলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিশেষ অনুমতি নিতে হবে।

এছাড়া গ্রুপ ‘বি‘ ক্যাটাগরির ১২টি দেশ থেকে আসার ক্ষেত্রে করোনা ভ্যাকসিন দেয়া থাকতে হবে। এবং আসার পর ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। দেশগুলো হলো আজের্ন্টিনা, কোস্টারিকা, ব্রাজিল, কলম্বিয়া, জর্জিয়া, কুয়েত, ওমান, সংযুক্ত আরব-আমিরাত, মালয়েশিয়া, মালদ্বীপ, লন্ডন ও উরুগুয়ে। করোনা ভ্যাকসিন দেয়া না থাকলে এসব দেশ থেকে আসলে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।

এর আগে ৩৯টি দেশের ওপর শর্ত দিয়ে ১ মে থেকে শর্তসাপেক্ষে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু করেছিল বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

এছাড়াও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চলাচলের ওপর বিধিনিষেধও বাড়ল। বিধিনিষেধ ১৪ জুলাই পর্যন্ত বাড়লেও বিদেশগামী ও বিদেশফেরত যাত্রীদের জন্য অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালু থাকবে।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানায়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী দেশে সব ধরনের অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট ৮ জুলাই থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। তবে মেডিকেল–সামগ্রী ও ত্রাণ পরিবহনসংক্রান্ত ফ্লাইট চলাচল এ নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে। এসব ফ্লাইট পরিচালনার সময় জীবাণুনাশক কার্যক্রম, সামাজিক দূরত্বসহ সব স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মানার নির্দেশনা দিয়েছে বেবিচক।

এদিকে সারা দেশে চলমান কঠোর বিধিনিষেধের (লকডাউন) মেয়াদ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। আগামী ১৪ জুলাই পর্যন্ত মেয়াদ বাড়িয়ে সোমবার সকালে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ আদেশ জারি করা হয়।

এর আগে গত ১ জুলাই থেকে সাত দিনের কঠোর লকডাউনের প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সরকারের পক্ষ থেকে এবার বিধিনিষেধ ‘কঠোর‘ই করার কথা বলা হয়। প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হলেই গ্রেপ্তার করার কথা বলে পুলিশও। বিধিনিষেধ মানতে বাধ্য করতে মাঠে নামানো হয় সেনাবাহিনীও।

লকডাউন নিয়োগত ৩০ জুন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়- করোনা সংক্রমণ রোধে সারা দেশে সব সরকারি-বেসরকারি-স্বায়ত্তশাসিত অফিস বন্ধ করে সাত দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। লকডাউনে বন্ধ থাকবে গণপরিবহন-শপিংমল। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চালু থাকবে শিল্পকারখানা।

Comments
Loading...
%d bloggers like this: