বাসযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকার অবস্থান ১৩৭ তম

0
50

বাসযোগ্য শহরের তালিকার এবার ঢাকার অবস্থান তলানিতে। ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) জরিপে ১৪০ দেশের তালিকায় শেষ দিক থেকে চার নম্বরে অর্থাৎ ১৩৭ তম অবস্থানে রয়েছে ঢাকা। করোনা মহামারীর মধ্যে বাসযোগ্যতায় এগিয়ে থাকা শহরগুলোর তালিকায় যেখানে ব্যাপক রদবদল হয়েছে, সেখানে এক বছরে ঢাকা এগিয়েছে মাত্র এক ধাপ।

নতুন এ জরিপ অনুসারে ২০২১ সালের এ তালিকায় শীর্ষে আছে নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড। জাপানের ওসাকা দ্বিতীয়, তৃতীয় অবস্থানে অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড।

লন্ডন ভিত্তিক ম্যাগাজিন দ্য ইকোনমিস্টের ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের বুধবার প্রকাশিত বাসযোগ্য শহরের এ তালিকায় ৩৩ দশমিক ৫ পয়েন্ট নিয়ে বিশ্বের ১৪০ শহরের মধ্যে ঢাকা আছে ১৩৭ নম্বরে। এর মানে বাস অযোগ্য শহরের মধ্যে ঢাকা চতুর্থ।

দেশের নানা প্রান্ত থেকে বছরে ঢাকায় আসেন ছয় লাখ ১২ হাজার মানুষ, দিনে আসেন এক হাজার ৭০০ জন। তাদের সবার আবাসন-কর্মসংস্থান এখানেই। এতে হয়ে অপরিকল্পিত নগরায়ন। এতে করে বাড়ছে যানজট, বায়ুদূষণ, জলাবদ্ধতা, বর্জ্য অব্যবস্থাপনাসহ নানা সমস্যা। ঢাকার এই অবনতির জন্য মূলত এইসব কারণগুলোকে দূষছেন পরিবেশবিদরা।

এবিষয়ে স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ড. আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার বলছেন, অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোর উদাসীনতার জন্যই রাজধানী ঢাকার এ অবস্থা। সচেতনতার অভাব রয়েছে নাগরিকদেরও।

তালিকায় ১০০ ভিত্তিক সূচকে ৯৬ স্কোর নিয়ে শীর্ষে থাকা নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড শীর্ষে এসেছে কোভিড নিয়ন্ত্রণে লকডাউনে, কারণ এর পর কমেছে দূষণ। অন্যদিকে, লকডাউন পরবর্তী সময়ে অবনতি হয়েছে ঢাকার।

ইআইইউর এর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে নিউজিল্যান্ড কঠোর লকডাউন আরোপ করেছিল। এর ফলে দেশটির অকল্যান্ড, ওয়েলিংটনসহ বিভিন্ন শহরের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক হয়েছে। এসব শহরের মানুষ করোনা–পূর্ববর্তী জীবনে ফিরে যেতে পেরেছে।

কোন শহর কতটা বাসযোগ্য তা বোঝার জন্য স্থিতিশীলতা, স্বাস্থ্যসেবা, সংস্কৃতি ও পরিবেশ, শিক্ষা এবং অবকাঠামো- এই পাঁচ মানদণ্ডে বিচার করেছে ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট।

তবে বাসযোগ্যতার বিচারে তালিকার নিচে অবস্থান করা দেশগুলোর মধ্যে খুব বেশি হেরফের হয়নি এবার। গতবারের মত এবারও তালিকার সবচেয়ে নিচে রয়েছে যুদ্ধ বিধ্বস্ত সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক, সব মিলিয়ে স্কোর এবার ২৬.৫। নাইজেরিয়ার লাগোস শহর তালিকার ১৩৯তম এবং পাপুয়া নিউ গিনির রাজধানী পোর্ট মোরসবি ১৩৮তম অবস্থানে আছে।

এদিকে, বাসযোগ্যতায় সবচেয়ে খারপ ১০টি দেশের তালিকায় এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে করাচির নামও এসেছে। তাদের অবস্থান ১৩৪ নম্বরে।