দে‌শে বিলাসবহুল লঞ্চকে ভাসমান কোয়ারেন্টাইন ইউনিট হিসেবে ঘোষণা

0
159

পটুয়াখালী প্র‌তি‌নি‌ধি:

ক‌রোনা সংক্রমণ থে‌কে ঝুঁকিমুক্ত রাখ‌তে দে‌শে প্রথমবা‌রের মত পটুয়াখালী নদী বন্দরে যাত্রীবা‌হি বিলাসবহুল এক‌টি লঞ্চকে ভাসমান প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন ইউনিট হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী এর কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। ‌তি‌নি জানান, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে দে‌শের বি‌ভিন্ন এলাকা থেকে ‌নৌপ‌থে বি‌ভিন্ন উপা‌য়ে যারা পটুয়াখালী জেলায় প্রবেশ করছে তা‌দের কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করার জন্য ঢাকা-পটুয়াখালী রু‌টে চলাচলরত যাত্রীবা‌হি ডাবল ডেকা‌রের বিলাসবহুল ‘এআর খান’ লঞ্চ‌কে প্রা‌তিণ্ঠা‌নিক কোয়া‌রে‌ন্টাইন ঘোষণা করা হলো।

তি‌নি আ‌রও জানান, শুধু ওই সকল যাত্রীরাই না, তাদের পরিবারকে নিরাপদ রাখতে এবং পটুয়াখালী জেলার মানুষকে নিরাপদ রাখতে এই লঞ্চে তাদের ১৪ দিন বাধ্যতামূলক অবস্থান করতে হবে। সি‌ভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ জাহাংগীর আলম শিপন জানান, ভাসমান এ ইউনিটে ৪০ টি ডাবল এবং ৩৮ টি সিংগেল কেবিন রয়েছে। কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের দেখভাল করার জন্য রয়েছে ডাক্তার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবং আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য।

তি‌নি জানান, ভাসমান এই কোয়ারেন্টাইন ইউনিটে কর্মরত ব্যক্তিদের সুরক্ষার জন্য জেলা প্রশাসক তাদের মাঝে ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেন। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে এ ভাসমান কোয়ারেন্টাইন ইউনিট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে তি‌নি ম‌নে করেন। এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ জাহাংগীর আলম শিপন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) হেমায়েত, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুল মুনয়েম সাদ, পটুয়াখালী নদী বন্দর কর্মকর্তা খাজা সাদিকুর রহমানসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পটুয়াখালীতে ইতোমধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তি মারা গেছেন। আক্রান্ত ব্যক্তি নারায়ণগঞ্জ থেকে পটুয়াখালীতে এসেছিলেন। তিনি একটি গার্মেন্টসে কর্মরত ছিলেন। মৃত ওই ব্যক্তির বোন-ও করোনায় আক্রান্ত হয়ে পটুয়াখালী আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এনি‌য়ে জেলায় মোট তিনজন ক‌রোনা রো‌গি শনাক্ত হ‌লো।