Bangladesh News Network

জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়ে জটিলতা

মুখোমুখি ইসি-স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

0 19

এক চিঠিতেই এনআইডির নিয়ন্ত্রণ ছাড়তে রাজি নন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তিনি বলছেন, এটা টেবিল-চেয়ার নয় যে উঠিয়ে নিয়ে গেল। এটা নিয়ে বসতে হবে আলোচনায়।

আর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলছেন, দায়িত্ব দেয়া হয়েছে যথাস্থানেই। এতে সমন্বয়হীনতার কোন সুযোগ নেই। বুধবার রাজধানীতে দুটি আলাদা অনুষ্ঠানে এমনই পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দেন দুজন।

২০০৭ থেকে ছবিসহ ভোটার তালিকা ও এনআইডি দিয়ে আসছে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু এখন এনআইডির নিয়ন্ত্রণ যাচ্ছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগে।

কিন্তু ভোটার তালিকা ও এনআইডির নিয়ন্ত্রণ সহজে ছাড়ছেন না প্রধান নির্বাচন কমিশনার। তিনি বলেন, সরকার চাইলেই হবে না, এ নিয়ে বসতে হবে আলোচনায়। এনআইডি উইং অনেক বড় প্রতিষ্ঠান। কীভাবে নেবে না নেবে, এ বিষয়ে নিশ্চয়ই সচিবপর্যায়ে কথাবার্তা হবে। ইসির সুবিধা-অসুবিধাগুলো তাদের জানানো হবে।

সিইসি এসময় আরো বলেন, সরকারের কাছে নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত হয়েছে এ রকম বলা যায় না। তারা নিতে চায়। ইসি দেবে না-এ রকমও বলা যায় না। ইসি সে রকম অবস্থানে নেই। আলোচনায় বসতে হবে, এটা হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ কথা।

তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান সাফ জানালেন, সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত। এই বিষয়ে যেসব কথা হচ্ছে তা একেবারেই অবান্তর। আমরা জেনে-বুঝেই সবার মতামত নিয়ে এনআইডি সেবাকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে দিয়েছি। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শও নেওয়া হয়েছে এ বিষয়ে।

এ বিষয়ে সিইসির আশঙ্কা, সরকারের এ সিদ্ধান্তে সংকট বাড়বে। এ অভিযোগ মানছেন না স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

এ দিকে এনআইডির দায়িত্ব বদলের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেনি নির্বাচন আইন বিশেষজ্ঞরাও। ছবিসহ জাতীয় পরিচয়পত্র প্রকল্পের ধারাবাহিকতায় জাতীয় পরিচয়পত্র বা এনআইডি’র তথ্য সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও তৈরির দায়িত্ব পালন করে আসছিলো নির্বাচন কমিশন। সম্প্রতি জাতীয় পরিচয়পত্রের দায়িত্ব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হাতে ন্যস্ত করার সিদ্ধান্ত হয়। গত ২০ জুন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তটি নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দেয়।

Comments
Loading...
%d bloggers like this: