গ্রিসে লকডাউন শিথিলে পণ্যের দোকানে লম্বা লাইন

গ্রিসে লকডাউনে শিথিলে চুল কাটা ও ফুল কেনার হিড়িক পড়েছে। সেই সঙ্গে বইয়ের দোকানেও ঢু মারেন ক্রেতারা। সোমবার থেকেই দেশটির মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে। আগামী সপ্তাহগুলোয় ধীরে ধীরে লকডাউন আরো শিথিলের পরিকল্পনা করছে দেশটির সরকার। তবে বাইরে অবস্থানকালে সার্জিক্যাল মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে রয়টার্স।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, যাত্রীরা মাস্ক পড়ছে কিনা ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখছে কিনা তা নিশ্চিতে সোমবার ভোর থেকে বাস ও মেট্রো স্টেশনগুলো পরিদর্শন করেছে পুলিশ।
আজ থেকে গ্রিকদের বাইরে যাওয়ার জন্য বিশেষ কারণের প্রয়োজন নেই।

রাজধানী এথেন্স ও অন্যান্য বড় শহরে বিদ্যুৎ চালিত পণ্যের দোকানের বাইরে লম্বা লাইন দেখা গেছে। একই অবস্থা দেখা গেছে, ফুলের দোকান, বইয়ের দোকান ও সেলুনগুলোয়। স্কুল, রেঁস্তোরা ও বার এখনো খুলে দেয়া হয়নি। তবে চলতি সপ্তাহের শেষের দিকেই খুলে দেয়া হতে পারে বলে প্রত্যাশা রয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনার আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬২৬ জন। প্রাণ হারিয়েছেন ১৪৪ জন। অন্যান্য ইউরোপীয় দেশগুলোর তুলনায় এ সংখ্যা তুলনামূলকভাবে অনেক কম।