গাইবান্ধারয় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে হত্যার অভিযোগ : ২ ভাই আটক

0
87

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:

গাইবান্ধার সাঘাটায় জমি নিয়ে তিন ভাইয়ের দ্বন্দ্ব আপোষের কথা বলায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল হামিদ মোল্লাকে কিলঘুষিতে হত্যার অভিযোগ উঠেছে সহোদরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় চার জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেছে নিহতের পরিবার। এরমধ্যে সহোদর শ্যামল ও নিলমনি সাহাকে আটক করেছে পুলিশ।

রোববার দুপুরে সাঘাটা বাজার এলাকা থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় পুলিশ। আবদুল হামিদ মোল্লা (৬০) সাঘাটা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সাঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বেলাল হোসেন জানান, স্থানীয় ব্যবসায়ী ননী গোপাল সাহার তিন ছেলের মধ্যে পৈত্রিক জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল। রোববার সকালে সাঘাটা বাজারে কালাচান সাহার সাথে তার দুই ভাই শ্যামল ও নিলমনি সাহার জমির ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়।

এসময় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল হামিদ মোল্লা তাদের আপোষের কথা বলেন। হামিদ মোল্লার কথায় আরও উত্তেজিত হয়ে ওঠেন শ্যামল ও নিলমনি। এক পর্যায়ে তারা হামিদ মোল্লাকে কিলঘুষি মারতে থাকেন। পরে স্থানীয়রা গুরুত্বর আহত হামিদ মোল্লাকে সাঘাটা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি বেলাল আরও জানান, হামিদ মোল্লাকে হত্যার ঘটনায় শ্যামল, নিলমনিসহ চারজনকে আসামি করে সাঘাটা থানায় একটি হত্যা মামলা করেছে নিহতের পরিবার। ঘটনার পর সহোদর দুই ভাইকে আটক করা হয়েছে। পলাতক দুই আসামিকেও গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। এছাড়া অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এলাকায় পুলিশের নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।