গত এক মাসে ৪০০ কোটি পিস মাস্ক বিক্রি করেছে চীন

0
165

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় গত এক মাসে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রায় ৪০০ কোটি পিস মাস্ক বিক্রি করেছে চীন। দেশটির শুল্ক দফতরের কর্মকর্তা জিন হাই রোববার জানান, এ পর্যন্ত ৩৮৬ কোটি মাস্ক, ৩ কোটি ৭৫ লাখ সুরক্ষা পোশাক, ১৬ হাজার ভেন্টিলেটর এবং ২৮ লাখের বেশি করোনাভাইরাসের টেস্টিং কিট রফতানি করেছেন তারা। মোট ১৪০ কোটি ডলারের চিকিৎসাসামগ্রী রফতানি হয়েছে।

তবে নেদারল্যান্ডস, ফিলিপাইন, ক্রোয়েশিয়া, তুরস্ক ও স্পেন তাদের নিম্নমানের চিকিৎসাসামগ্রী নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। মানসম্পন্ন না হওয়ায় নেদারল্যান্ডস সরকার গত সপ্তাহে চীন থেকে পাঠানো ১৩ লাখ মাস্কের মধ্যে ছয় লাখ ফিরিয়ে দিয়েছে।

করোনাভাইরাসে প্রথম আক্রমণের শিকার হয় চীন। প্রায় আড়াই মাসের লড়াই শেষে ভাইরাসটিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে দেশটি। চীন এখন বিশ্বের কাছে ‘করোনা মোকাবেলায় মডেল’। করোনার উৎসস্থল চীনের হুবেই প্রদেশে গত তিন দিনে নতুন করে কেউ আক্রান্ত হয়নি।

পর্যাপ্ত ভাইরাস শনাক্তকরণ কিট, মাস্ক, ভেন্টিলেটর, সুরক্ষামূলক পোশাক এবং চিকিৎসকদের একাগ্র প্রচেষ্টায় পুরোপুরি সফল তারা। বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম চেয়ে চীনের দ্বারস্থ হচ্ছে করোনা আক্রান্ত দেশগুলো। তাদের আবেদনে সাড়াও দিচ্ছে চীন। মেডিকেল সরঞ্জামের পাশাপাশি করোনা বিশেষজ্ঞদের পাঠিয়েও সহায়তার হাত প্রশস্ত করছে বেইজিং।

এতে কূটনীতি, বাণিজ্য দুই দিকেই ক্ষতি পুষিয়ে নেয়ার সুযোগ তৈরি করেছে দেশটি।