কৃষকের জন্য ৫০০০ কোটি টাকা প্রণোদনা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী

0
153

করোনাভাইরাসে কৃষি খাতের ক্ষতি মোকাবেলায় কৃষকের জন্য ৫০০০ কোটি টাকার বিশেষ প্রণোদনা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ তহবিল থেকে সহজ শর্তে মাত্র ৫ শতাংশ সুদে ঋণ নিতে পারবেন কৃষক। সকালে গণভবন থেকে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে খুলনা ও বরিশাল বিভাগের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সের স্বাগত বক্তব্যে এই কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে উৎপাদন যাতে ব্যাহত না হয় সে জন্য আমরা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজ শুরু হয়ে যাবে কিছুদিনের মধ্যেই। আমরা দেখেছি, অন্যান্য বছর ধান কাটা ও মাড়াইয়ের জন্য পর্যাপ্ত শ্রমিক পাওয়া যায় না। তবে এবার যেহেতু করোনাভাইরাসের কারণে অনেকেই কর্মহীন হয়ে পড়েছেন, তারা এখন ধান টাকা ও মাড়াইয়ে কাজ করতে পারবেন। তারা কাজ করতে চাইলে সে ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগামী অর্থবছরে চাষীদের জন্য পাঁচ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। যা বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে। ক্ষুদ্র ও মাঝারি চাষিরা পাঁচ শতাংশ সুদে এ ঋণ নিতে পারবেন। এছাড়া সারের জন্য ৯ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি, কৃষিতে যান্ত্রিকীকরণের জন্য ১০০ কোটি টাকা, বীজের জন্য ১৫০ কোটি টাকা এবং কৃষকদের জন্য আরও ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, এ প্রণোদনা গ্রামাঞ্চলের ক্ষুদ্র ও মাঝারি কৃষকদের জন্য। যারা পোল্ট্রি, কৃষি ফার্ম, ফলমূল, মসলা জাতীয় খাদ্য পণ্য উৎপাদন করবেন তারা এখান থেকে ঋণ নিতে পারবেন। আমাদের আরও একটি উদ্যোগ চলমান আছে। পেঁয়াজ, রসুন, আদার মতো মসলা যারা উৎপাদন করছেন, তাদের জন্য ৪ শতাংশ সুদে ঋণ দেওয়া হয়। এই সুবিধা চালু থাকবে। এর পাশাপাশি আমাদের নতুন স্কিম হিসেবে ৫ হাজার কোটি টাকার এই প্রণোদনা প্যাকজ চালু থাকবে।

তিনি আরও বলেন, দেশে খাদ্যের কোনো অভাব নেই। অনেকেই আছে যারা সাহায্য চাইতে পারেন না। তাদেরও সহায়তা দেওয়া হবে। দুর্যোগ আসে, দুর্যোগ সাহসের সাথে মোকাবেলা করতে হবে। নিজের এলাকাকে সুরক্ষিত রাখুন। অকারণে ছোটাছুটি করবেন না।

সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বাগানে, ঘরের পাশে এক খণ্ড জমি তাতে অনাবাদি না থাকে।