করোনায় বগুড়া পুলিশের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

0
120

মোঃ সিরাজুল ইসলাম, ন্যাশনাল ডেস্কঃ

সারাবিশ্বে মহামারিতে রূপ নেয়া করোনাভাইরাস থেকে মুক্তি পেতে একমাত্র উপায় হলো ঘরে থাকা। ঘরে থাকলেই মেলবে মুক্তি কিন্তু এত দীর্ঘ সময় কীভাবে ঘরবন্দি জীবনযাপন সম্ভব? বিশেষ করে শিশুদের ক্ষেত্রে। শেষমেষ মুক্তির পথ দেখাল বগুড়ার পুলিশ।

‘করোনার বিরুদ্ধে, ঘরে থেকে যুদ্ধ’ শ্লোগানে বাসায় থাকার সময়টা উপভোগ্যের জন্য ব্যতিক্রমী এক আয়োজন করেছে জেলা পুলিশ। এ আয়োজনের মাধ্যমে শিশু থেকে শুরু করে অভিভাবক ও সকল বয়সী মানুষের জন্য বেশকিছু আকর্ষণীয় প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়েছে।

বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা জানান, ইতোমধ্যে জেলা পুলিশের ওয়েবসাইট থেকে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এ প্রতিযোগিতার প্রচারণা চালানো হয়েছে। ঘরে বসেই এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন দেশের যেকোনো স্থানের মানুষ।

প্রতিযোগিতার বিষয়গুলো হচ্ছে- স্ক্রিপ্ট রাইটিং, রচনা, চিত্রাঙ্কন, গান ও কবিতা আবৃত্তি। এর মধ্যে শিশুদের জন্য রয়েছে চারটি গ্রুপে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। এর বিষয়গুলো হচ্ছে- ‘ক’ বিভাগে (৭ম থেকে ৮ম শ্রেণি) করোনা সচেতনতা, ‘খ’ বিভাগে (৪র্থ থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণি) বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা, ‘গ’ বিভাগে (১ম থেকে ৩য় শ্রেণি) বাংলাদেশের প্রকৃতি এবং ‘বিশেষ’ গ্রুপে (বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন) উন্মুক্ত বিষয়ে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা।

রচনা প্রতিযোগিতায় ‘ক’ বিভাগে সর্বোচ্চ ৬০০ শব্দের, বিষয় হচ্ছে (এইচএসসি থেকে মাস্টার্স)- কোয়ারেন্টাইন কী এবং কেন? করোনা প্রেক্ষাপটে নাগরিক সচেতনতা, দায়িত্ব ও কর্তব্য, ‘খ’ বিভাগে সর্বোচ্চ ৫০০ শব্দের (৬ষ্ঠ থেকে এইচএসসি), বিষয়- বঙ্গবন্ধুর শৈশব, কৈশোর ও ছাত্রজীবন এবং ‘গ’ বিভাগে (৩য় থেকে ৫ম শ্রেণি) সর্বোচ্চ ৩০০ শব্দের, বিষয় হচ্ছে- ‘যেভাবে কাটছে ছুটি’। প্রতিযোগিতায় গান ও কবিতা রাখা হয়েছে সবার জন্য উন্মুক্ত। যার বিষয় হচ্ছে- করোনা যুদ্ধে পুলিশের কার্যক্রম নিয়ে গান অথবা কবিতা যা ভিডিও করে পাঠাতে হবে ই-মেইলে।

প্রতিযোগিতা শুধু শিশু ও শিক্ষার্থী নয়, অভিভাবকদের জন্যও রয়েছে আকর্ষণীয় একটি বিষয়ে সর্বোচ্চ ৬০০ শব্দের স্ক্রিপ্ট রাইটিং প্রতিযোগিতা। যার বিষয় হচ্ছে- পারিবারিক সহিংসতার উৎপত্তি, কারণ ও প্রতিকার। রচনা ও স্ক্রিপ্ট রাইটিং প্রতিযোগিতার ক্ষেত্রে অবশ্যই নিজ হাতে লিখে তা পিডিএফ ফাইলে অথবা ছবি তুলে ই-মেইলে পাঠাতে হবে। জমাদানের শেষ তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে আগামী ৫ মে। জেলা পুলিশ বগুড়া ফেসবুকের মাধ্যমে প্রতিযোগিতার ফলাফল প্রকাশ হবে ১৫ মে। রচনা বা ভিডিও পাঠানোর জন্য competition.spbogura@gmail.com এবং যেকোনো প্রয়োজনে ০১৭৪১০৯৮৭০০ নম্বরে যোগাযোগের জন্য সকলকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

প্রতিযোগিতায় প্রতি গ্রুপে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জনকারীদের যথাক্রমে পাঁচ হাজার, তিন হাজার এবং দুই হাজার টাকার প্রাইজবন্ড প্রদান করা হবে। শুধু তা-ই নয়, প্রতি গ্রুপের উত্তীর্ণ প্রথম ২০ জনকে জেলা পুলিশ বগুড়ার পক্ষ থেকে সনদপত্র প্রদান করা হবে।

ব্যতিক্রমী এ প্রতিযোগিতা আয়োজন প্রসঙ্গে পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বলেন, করোনা যুদ্ধে জয়ী হতে যখন প্রধান অস্ত্র ঘরে থাকা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, তখন সাধারণ মানুষকে ঘরে রাখতে এবং তাদের নিজ নিজ বাসায় অবস্থানের সময় উপভোগ্য করতে ব্যতিক্রমী এ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এ প্রতিযোগিতায় আশানুরূপ সাড়া মিলবে বলেও মনে করেন তিনি।