করোনার টিকা আবিষ্কারের কাজ চলছে বিশ্বের ৩৫ প্রতিষ্ঠানে

0
83

মহামারী করোনা ভাইরাসের চিকিৎসায় কাজে আসবে, এমন ওষুধ নিয়ে কাজ করেছে বিশ্বের অনেক ছোট-বড় কোম্পানি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সুনির্দিষ্ট কোনো ওষুধের স্বীকৃতি না দিলেও পরীক্ষামূলক অনেক ওষুধ ব্যবহারে পাওয়া যাচ্ছে সফলতা।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষক দল টাইম পত্রিকাকে জানিয়েছে, আগামী চার মাসের মধ্যেই টিকা প্রস্তুত হতে পারে। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে মানবদেহে এর পরীক্ষামূলকভাবে কার্যকারিতা পরীক্ষা করা হবে।

মানবদেহে করোনার টিকা পরীক্ষার তিনটি ধাপে সফল হলেই তা আক্রান্তের দেহে প্রয়োগ করা হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে বিশ্বের ৩৫টি একাডেমি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করোনা ভাইরাসের টিকা আবিষ্কারের চেষ্টা করছে।

চীনের ক্যানসিনো বায়োলজিকস ও যুক্তরাষ্ট্রের মর্ডানা থেরাপেউটিকস এর মধ্যেই করোনা টিকার ক্লিনিক্যাল পরীক্ষা চালিয়েছে।

গতমাসেই যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে প্রথমবারের মতো মানব শরীরে পরীক্ষা চালানোর ঘোষণা দেয়া হয়েছে। প্রাণীর ওপর কোন পরীক্ষা না চালিয়েই মানব শরীরে পরীক্ষা চালানো হয়।

এপ্রিলের শেষ নাগাদ মানব শরীরের পরীক্ষা চালানোর আশা করছেন অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীরা।

সবগুলো পরীক্ষা সফল হবে এমন নয়। তবে সফল হলেও সব মিলিয়ে বড় আকারে বাজারে আসতে ২০২১ সালের মাঝামাঝি নাগাদ সময় লেগে যাবে।

এটাও মনে রাখতে হবে, বর্তমানে মানব শরীরে চার ধরণের করোনা ভাইরাস দেখা যায়। কিন্তু এগুলোর কোনটির টিকা আবিষ্কৃত হয়নি।

সূত্র: বিবিসি বাংলা।