আমেরিকা করোনার দাপটে জবুথবু হয়ে পড়েছে ; ফেলে দেয়া হচ্ছে দুধ, ডিম, সবজি

0
104

লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যা। আর তাই দেশে দেশে করোনার বিস্তার রোধে লকডাউন ঘোষণা করা হচ্ছে। সবচেয়ে বড় অর্থনৈতিক দেশ যুক্তরাষ্ট্রকেও করোনার দাপটে জুবুথুবু হয়ে পড়েছে।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমেরিকার কৃষকরা তাদের উৎপাদিত দুধ, ডিম ও সবজি ফেলে দিচ্ছেন, কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে কেন? এই ফেলে দেওয়া নিউজের খবরে হয়তো গুজবও রটে যেতে পারে এগুলো খাওয়া নিষিদ্ধ হচ্ছে কিনা। তবে নিষেধের কোনো কারণ নয় বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

মূলত করোনা ভাইরাসের কারণে দেশটিতে হোটেল, রেস্টুরেন্ট, স্কুল ও অন্যান্য অনেক খাদ্যপণ্যের দোকান বন্ধ হয়ে পড়ায় অনেক কৃষক নিজেদের উৎপাদিত এসব জিনিস ফেলে দিতে বাধ্য হচ্ছেন।

ডেইরি ফারমার্স অব আমেরিকার তথ্যানুযায়ী, দেশটির কৃষকরা প্রতিদিন ৩৭ লাখ গ্যালন দুধ ফেলে দিতে বাধ্য হচ্ছেন। প্রতি সপ্তাহে চিকেন প্রসেসরে গুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে ৭ লাখ ৫০ হাজার ডিম। আর মাঠের ফসল মাঠেই রেখে আসছে। আন্তর্জাতিক ডেইরি ফুডস অ্যাসোসিয়েশনের হিসাব অনুযায়ী বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের কৃষকরা উৎপাদিত দুধের ৫ শতাংশ নষ্ট করে ফেলছে। অনেকে তাজা শাকসবজি মাটি চাপা দিচ্ছে, যারা পারছে তারা বিভিন্ন সংস্থাকে দান করে দিচ্ছে, যারা দরিদ্রদের সহায়তা দেয়।

কৃষকরা বলছেন, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ কম্পানি বা অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা আর খাদ্য সরবরাহ করতে পারছেন না। ফলে তাদের এগুলো নষ্ট করে ফেলা ছাড়া কোনো উপায় নেই। সাউথ ফ্লোরিডার কৃষকরা মাঠে ট্রাকটর পাঠিয়ে শিম, বাঁধাকপিসহ অন্যান্য সবজি মাঠেই কবর দিয়ে দিচ্ছে। সবজি উৎপাদন প্রতিষ্ঠান আর সি হ্যাটনের মালিক পল অ্যালেন বলেন,‘আমাদের হৃদয় ভেঙ্গে যাচ্ছে, কিন্তু কি আর করব। জমিতেই লাখ লাখ পাউন্ড সবজি নষ্ট করে ফেলছি।’